" /> অসাম্প্রদায়িক সমাজ প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জন্ম - নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
মঙ্গলবার, ০৩ অক্টোবর ২০২৩, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন
নিউজ বোর্ড :
করোনার চেয়েও সাত গুণ ভয়ংকর, মৃত্যু হতে পারে ৫ কোটি মানুষের,আসছে মহামারি ‘ডিজিজ এক্স’ শাহজালালে তিন হাজার ৫০০ ইয়াবাসহ আটক ১ এসবির ওয়েবসাইটের শুভ উদ্বোধন বেগম জিয়াকে বিএনপি গিনিপিগ বানিয়েছে: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ খালেদা জিয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হবে না জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে সরকার হত্যা করতে চায় : মির্জা ফখরুল বিদেশি প্রভুদের কৃপানির্ভর বিএনপির রাজনীতি: ওবায়দুল কাদের ভয়েস অফ আমেরিকা সাক্ষাৎকারঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কালিয়াকৈরে মাদ্রাসার ওয়াকফা করা জমি জবর দখলের অভিযোগ পরিচালকের বিরুদ্ধে কোভিডের ভ্যাকসিনে অবদান রাখায় নোবেল পেলেন দুই মার্কিন বিজ্ঞানী সাংবাদিক ইলিয়াসকে হাজির হতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির নির্দেশ বনজ কুমারের মামলায় আইফোন কিনতে বাসা চুরি করে ইমন জাপানকে কাবাডিতে উড়িয়ে দারুণ শুরু বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা গণমাধ্যম এড়িয়ে চলছেন নিরাপদ সড়ক চাইয়ের ২৭ কর্মসূচি ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষ্যে মুহাম্মাদী ফাতেমী ইসলামী ঐক্য সংস্থার র‌্যালি সরকার শিশুদের সুশিক্ষা নিশ্চিতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী রেনা বিটারের সঙ্গে ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র সচিবের বৈঠক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও বিয়ের অনুষ্ঠানের একটি ছবির গল্প ইরাকের সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত বার্নিকাটের ওপর হামলার মামলায় চার্জশীট দাখিল
নোটিশ বোর্ড :
জরুরি ঘোষণাঃ আমাদের আই টি বিভাগের কারিগরি উন্নয়ন এর কাজ চলছে! এতে প্রচারে বিঘ্ন ঘটতে পারে সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখিত। #Ndtvbdnewsroom “জরুরী আবশ্যক”বেসরকারী অনলাইন টেলিভিশন চ্যানেল ” নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন ” এনডিটিভি তে এ উপস্থাপক উপস্থাপিকা, ভয়েস আটির্স,অফিস সহকারী পুরুষ – মহিলা এসএসসি,এইচএসসি,স্নাতক,ছবি সহ আবেদন করতে হবে এই মেইলে hr@ndtvbd.com * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * নাগরিক সাংবাদিকতার পথে ,আপনি হতে পারেন নাগরিক সাংবাদিক, দেরি না করে এখনি পাঠিয়ে দিন আপনার ছবি সহ বায়োডাটা এই মেইলে hr@ndtvbd.com, আপনারা যদি কোন সংবাদ বা নিউজ ক্লিপ পাঠাতে চান তাহলে এই মেইলে পাঠাতে পারেন news@ndtvbd.com– Head Of News–* পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার

অসাম্প্রদায়িক সমাজ প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জন্ম

WhatsApp Image 2023 09 14 at 12.53.21 PM

8 / 100

অসাম্প্রদায়িক সমাজ প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জন্ম। ১৯৮৩ সালে সম্মিলিত একুশে উদযাপন পরিষদ এবং ১৯৮৪ সালে নাম পরিবর্তন করে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট গঠনের মধ্য দিয়ে যে অভিযাত্রা শুরু হয়েছিলো তা আজো অব্যাহত রয়েছে। এ দীর্ঘ পথযাত্রায় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট মুক্তিযুদ্ধের মৌল চেতনায় বিশ্বস্থ থেকে সকল কর্মসূচি প্রণয়ন করেছে। একটি অসাম্প্রদায়িক, শোষণমুক্ত, গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আর সে কারণে বিগত দিনগুলোতে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির আস্ফালন, মানবতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার আন্দোলন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগষ্টের নির্মম হত্যাকান্ডের বিচার, স্বৈরাচার বিরোধী লড়াই, ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপাসনালয়ে হামলা, শিল্পের নারা মাধ্যমের বিরুদ্ধে ধর্মীয় অপপ্রচার এবং হামলার ঘটনায় আমরা প্রতিবাদ এবং জনপ্রতিরোধ গড়ে তোলায় সচেষ্ট থেকেছি।

WhatsApp Image 2023 09 14 at 12.57.39 PM

১৯৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নির্মমভাবে হত্যা করে অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী খুনীচক্র বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ থেকে বিচ্যুত করে পাকিস্তানী ভাবাদর্শে ফিরিয়ে নেয়ার অপচেষ্টা চালিয়েছে। বাহাত্তরের সংবিধানের মূলভিত্তি চার রাষ্ট্রীয় মূলনীতি গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা ও বাঙালি জাতীয়তাবাদকে তারা সংবিধান থেকে বাদ দিয়েছে। দীর্ঘ একুশ বছর পাঠ্যপুস্তক এবং সরকারি প্রচার মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভুল তথ্য প্রচার করেছে। এ সময় স্বাধীনতা বিরোধী সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রাজনীতিতে পুনর্বাসিত করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার অংশীদারিত্ব দেয়া হয়েছে। সাম্প্রদায়িক জঙ্গিগোষ্ঠীর উত্থানে বিএনপি-জামাত জোট সরকারের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ পৃষ্ঠপোষকতা দৃশ্যমান। ২০০৪ সালের ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা ছিলো ১৫ আগস্টের প্রতিচ্ছবি। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সহ আওয়ামী লীগের পুরো কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে হত্যা করার এক নির্মম গভীর ষড়যন্ত্র জাতি প্রত্যক্ষ করে।

অনেক লড়াই-সংগ্রাম এবং বহু মানুষের রক্তের বিনিময়ে বাংলাদেশ আবার মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের পথে হাঁটতে শুরু করেছে। অনেক প্রতিবন্ধকতা, দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আমাদের এ বন্ধুর পথ অতিক্রম করতে হচ্ছে। এই অপশক্তি কখনো কখনো পবিত্র ধর্মকে সংস্কৃতি এবং রাজনীতির মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দেশে বিদ্যমান সম্প্রীতির আবহকে বিনষ্ট করতে চায়। আমরা সাংস্কৃতিকর্মীরা সকল সময়ে সচেতন থেকে এ ধরনের অপতৎপরতা প্রতিরোধে সচেষ্ট এবং সম্প্রীতির সমাজ বিনির্মাণে সংগ্রামে-সৃজণে ক্রিয়াশীল থেকেছি।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র আবার নতুন করে দৃশ্যমান হচ্ছে। আমরা প্রত্যেকেই চাই একটি নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ, অবাধ নির্বাচন- যেখানে প্রত্যেক মানুষ স্বাধীনভাবে তার নিজ নিজ ভোট প্রদান করবে। এ নির্বাচন নিয়ে দৃশ্যত রাজনৈতিক দলগুলো দুইভাগে বিভক্ত। একপক্ষ বিদ্যমান সংবিধানের আলোকে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের পক্ষপাতি। অপরদিকে বিএনপি সহ তাদের ঘরানার রাজনৈতিক দলসমূহ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচনে অংশ না নেয়া এবং নির্বাচন করতে না দেয়ার কথা বলছে। আমাদের বক্তব্য হচ্ছে— বিগত দিনে আমরা প্রত্যক্ষ করেছি ৯০ দিনের মধ্যে নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত করে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নিকট ক্ষমতা হস্তান্তরের বাধ্যবাধকতা থাকলেও অনির্বাচিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার অবৈধভাবে দুই বছর ক্ষমতা আঁকড়ে রেখেছিলো। রাজনৈতিক দলের নেতাদের গ্রেফতার করে- জনগণকে রাজনীতি বিমুখ করতে চেয়েছিল। শুধু রাজনীতি বন্ধ নয় শিল্প-সংস্কৃতি চর্চার ক্ষেত্রেও তারা নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছিলো। এমনি বাস্তবতায় এটাই সত্যি যে- তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা নিরপেক্ষ নির্বাচনের গ্যারান্টিতো নয়ই বরঞ্চ গণতন্ত্রের জন্যও হুমকিস্বরূপ। আর সে কারণে আমরা চাই, সংবিধানের আওতায় সবার মতামতের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশনকে আরো শক্তিশালী করে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন করা ।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সমাজের সচেতন অংশ হিসেবে সংস্কৃতিকর্মীদের বিরাট দায়িত্ব রয়েছে বলে আমরা মনে করি। আমরা চাই সাম্প্রীতির বাংলাদেশ। আর সে কারণেই এমন একটি সমাজের আমরা স্বপ্ন দেখি যেখানে জাতি-ধর্ম-বর্ণ-গোত্র নির্বিশেষে সবাই মিলে মিশে একসাথে শান্তিতে বসবাস করবে। যে সমাজে প্রত্যেক মানুষের মৌলিক-মানবিক অধিকার নিশ্চিত হবে। আমরা মনে করি, এ প্রত্যাশা বাস্তবায়নের জন্য দেশব্যাপী মানুষের জাগরণ প্রয়োজন। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সংস্কৃতির শক্তি নিয়ে সে জাগরণে কাঙ্ক্ষিত ভূমিকা রাখতে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। ‘আমাদের দেশ সম্প্রীতির বাংলাদেশ’- শিরোনামে নাটক, সঙ্গীত, আবৃত্তি, নৃত্যের সমন্বিত উপস্থাপন এবং একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শনীর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ বিকেল সাড়ে পাচটায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ কর্মসূচীর সূচনা হবে। একই দিনে সিলেট, কুমিল্লা, পটুয়াখালী, সাতক্ষীরা, জয়পুরহাট, যশোর, রাজশাহী, কিশোরগঞ্জ-এ কর্মসূচি পালিত হবে। আমাদের প্রচেষ্টা রয়েছে ধারাবাহিকভাবে ৬৪ জেলা এবং সম্ভাব্য সব উপজেলায় এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা।
আমরা দেশের সকল সাংস্কৃতিকর্মী, বিশেষকরে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সকল জেলা, উপজেলা কমিটিকে এ সকল কর্মসূচী বাস্তবায়নে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহনের আহ্বান জানান হয় ।

ndtvbd/babuldas


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা