" /> ফারুক খানসহ জাল মুক্তিযোদ্ধা এবং স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সদস্যদের আ. লীগের কমিটিতে পদায়ন না করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:২৬ পূর্বাহ্ন

ফারুক খানসহ জাল মুক্তিযোদ্ধা এবং স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সদস্যদের আ. লীগের কমিটিতে পদায়ন না করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

WhatsApp Image 2022 12 22 at 11.40.02 min

5 / 100

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর ২২তম জাতীয় সম্মেলন পরবর্তী কমিটিতে ফারুক খানসহ জাল মুক্তিযোদ্ধা এবং স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সদস্যদের সংগঠনে পদায়ন না করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড, কেন্দ্রীয় কমিটি।

বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড, কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মেহেদী হাসান।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বাংলাদশ আওয়ামীলীগ মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী প্রধান রাজনৈতিক সংগঠন, বাংলাদেশ সৃষ্টিতে যার ভূমিকা ঐতিহাসিকভাবে স্বীকৃত। বাংলাদেশের ইতিহাস ও মহান মুক্তিযুদ্ধকে প্রশ্নবিদ্ধ করে এমন কোনো ব্যক্তি যদি এই ঐতিহ্যবাহী সংগঠনে পদায়িত হয় তাহলে তা বিশ্বাসজ্ঞাতকতার শামিল। কোনো ব্যক্তি যদি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ না করেও অসত্য তথ্য উপস্থাপনের মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা বনে যায় তাহলে সে যুদ্ধাপরাধী ও মানবতাবিরোধী অপরাধীদের চেয়েও জঘন্যতম। বর্তমানে আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম, সদস্য ফারুক খানসহ কতিপয় নেতা জাল মুক্তিযোদ্ধা হয়েছে মর্মে জনশ্রুত, যাদের তথ্য-প্রমাণাদি সংগ্রহের কাজ চলমান। ফারুক খানের বৃত্তান্ত আমরা জানার পর গত ১১ই ডিসেম্বর ২০২১ অকালীন অবঃ লেঃ কঃ ফারুক খান তার সেনা পরিচয় গোপন করে স্বাধীনতা ৫০ বছর পর সাধারণ মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গেজেট ভুক্তির প্রতিবাদ শিরোনামে জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছিলাম। ১ বছর অতিবাহিত হওয়ার পরেও অদ্যাবধি তিনি তার স্বপক্ষে কোনো যুক্তি প্রমাণ উপস্থাপন করেননি। স্বাধীনতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধী ও মানবতা বিরোধীদের বিরুদ্ধে আমরা সর্বদা সোচ্চার, তাদের পরিবারের কোনো সদস্য যেন তথ্য-পরিচয় গোপন করে আওয়ামীলীগে প্রবেশ করে সংগঠনের পবিত্রতা নষ্ট করতে না পারে সেলক্ষ্যেই আজকের এই আয়োজন।

গোপালগঞ্জ-০১ আসনের সংসদ-সদস্য অকালীন অবসরপ্রাপ্ত লেঃ কর্নেল (অব.) ফারুক খান সেনাবাহিনীর তালিকাভূক্ত মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গেজেটভুক্ত হতে ব্যর্থ হওয়ার পর সেনা পরিচয় গোপন করে তার সংসদীয় পরিচিতি সমৃদ্ধ প্যাডে গত ০৩/০১/১১ তারিখে স্বাক্ষরিত স্মারক নং ২১৫/ গোপা-/ডিও/২০১২/০৩৪ মূলে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি এবং তালিকাভুক্তকরণ প্রসঙ্গে উল্লেখিত পত্র মোতাবেক জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের ৭২তম সভার আলোচ্যসূচি ১১.৫ এর সুপারিশ ও গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ০৩ আগস্ট ২০১১ মঙ্গলবার প্রকাশিত গেজেট নং ৫৪৯১ মূলে স্বাধীনতার ৫০ বছর পর সাধারণ মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গেজেটভুক্ত হয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মুহাম্মদ ফারুক খান নামে নয়া পরিচয় লাভ করেছেন।

ফারুক খান নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি এবং তালিকা ভুক্তির জন্য উপযুক্ত মনে করে মহান মুক্তিযুদ্ধকে তাচ্ছিল্য করেছেন এবং আমাদের স্বাধীনতা ও সার্বোভৌমত্বের প্রতি আঘাত করতে ইতিহাসের ভয়াবহ বিকৃতি ঘটিয়েছেন। বিষয়টি একটি জাতি সত্তার প্রতি আঘাত যা যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধের চেয়েও ভয়াবহ।

মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী প্রধান রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে তার আদর্শীক ধারা অব্যাহত রাখার দাবি জানাচ্ছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা