" /> জিয়া আইন-সংবিধান লংঘন করে ক্ষমতায় ছিল -শিক্ষামন্ত্রী  – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:১৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ
খালেদা, তারেককে নিয়ে সময় টিভির প্রতিবেদন সম্পর্কে যা বললেন ফখরুল বিদ্যুতের দাম প্রতি মাসেই সমন্বয় করা হবে : প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী বিশ্বব্যাপী উচ্চশিক্ষার সুযোগ তৈরি করে দিয়েছেন : নাছিম বিআইডব্লিউটিএ’র অনুমোদন ছাড়া কোনো সেতু নয় : নৌ প্রতিমন্ত্রী সিলেটে আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবস- ২০২৩ উদযাপন সাংবাদিক আফতাব হত্যা : ৯ বছর ছদ্মবেশে ফাঁসির আসামি, অবশেষে গ্রেপ্তার বিদ্যার দেবী শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা সাংবাদিক আফতাব হত্যা : ৯ বছর ছদ্মবেশে ফাঁসির আসামি, অবশেষে গ্রেপ্তার বার বার আদালতে আনা নেয়ায় অসুস্থ হয়েছেন রিজভী : ইউট্যাব ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার মূল হাতিয়ার হবে ডিজিটাল সংযোগ : প্রধানমন্ত্রী

জিয়া আইন-সংবিধান লংঘন করে ক্ষমতায় ছিল -শিক্ষামন্ত্রী 

FB IMG 1671534860403

9 / 100

নাটোর প্রতিনিধিঃ শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, জিয়াউর রহমান সকল আইন-সংবিধান লংঘন করে তিনি ক্ষমতায় এসেছিলেন। ক্ষমতায় টিকে থাকতে রাতে কারফিউ জারি করেছিলেন। মানুষের অধিকার নষ্ট করেছিলেন। বিএনপি জনগণ থেকে জনবিচ্ছিন্ন তাদের দিয়ে আন্দোলন-সংগ্রাম হয় না। আন্দোলন করতে হলে জনগণের সম্পৃক্ততা লাগে। 

মঙ্গলবার(২০ ডিসেম্বর) দুপুরে নাটোর অনিমা চৌধুরি মিলনায়তনে মহান বিজয় দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির উদ্দেশে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ১০ই ডিসেম্বর থেকে নাকি দেশ একজন দন্ডিত আসামির কথা চলছে। এ বলে দেশে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চেয়েছিল।

জিয়াউর রহমান সকল আইন-সংবিধান লংঘন করে তিনি ক্ষমতায় এসেছিলেন। ক্ষমতায় টিকে থাকতে রাতে কারফিউ জারি করেছিলেন। মানুষের অধিকার নষ্ট করেছিলেন। জিয়া অবৈধ ক্ষমতা বৈধ করে ক্ষমতায় ছিলেন। তারা এখন গণতন্ত্রের কথা বলেন। কারাগারে জাতীয় নেতাদের হত্য করেছিলেন। ক্ষমতায় এসে রাজনৈতিক দলের লোভীদের নিয়ে অবৈধ সরকার গঠন করেন। এখন আমরা তাদের কাছে গণতন্ত্রের কথা শুনি। যারা ‘জয় বাংলা’ স্লোগান নিষিদ্ধ করেছিলেন। 

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ২৩ বছর দেশের মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করেছেন। তার রাজনীতি জীবনে পুরা জীবনই কারাগারে কাটিয়েছেন। কি করে সংগ্রাম করতে হয়, কি করে ত্যাগ করতে হয়, তা বঙ্গবন্ধু শিখিয়ে গেছেন। বঙ্গবন্ধু ৬ দফা দিয়েছেন। দেশের মানুষকে শোষনের হাত থেকে রক্ষায় সারা জীবন সংগ্রাম করে গেছেন। তিনি একটি স্বাধীস সার্বভৌমত্ব দেশ উপহার দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর ১৯৭১ সালের ভাষণ যা বিশ্বের অন্যতম ভাষণ।  তাঁর ভাষণে অনুপ্রাণিত হয়ে বাঙ্গালীরা মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। দেশ স্বাধীন করেছেন। 

ডা. দিপু মনি বলেন,  মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে প্রতি জেলায় জেলা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন বছরেরই হাতে বই পাচ্ছে। গরীব শিক্ষার্থীরা বৃত্তি পাচ্ছে। সবই মাননীয় জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য।

জনগণের জন্য ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়েছেন তিনি। তরুণ প্রজন্মের জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। আমরা সৌভাগ্যবান যে আমাদের একজন শেখ হাসিনা আছেন। তার দুরদর্শিতায় উন্নয়নে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, জনগণের 

সম্পৃক্ততা নিয়ে আওয়ামীলীগ বার বার আন্দোলন-সংগ্রাম করে জনগণের অধিকার এনে দিয়েছে, স্বাধীনতা এনে দিয়েছে, গণতন্ত্র এনে দিয়েছে এবং দেশের উন্নয়ন দিয়েছে। যাদের সাথে জনগণের সম্পৃক্ততা নেই। যারা এদেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। যারা যুদ্ধ অপরাধীদেরর বিচার ধ্বংস করার জন্য বার কার হরতাল ডেকেছে। পার্বত্যঞ্চলের শান্তি চুক্তি বানচাল করেছে। তারা শান্তির 

বিপক্ষের শক্র। বাংলাদেশে রাজনীতি থাকবে, রাজনীতিতে পক্ষ বিপক্ষ থাকবে। স্বাধীন সার্বভৌমত্ব বাংলাদেশে সরকার থাকবে, বিরোধী দল থাকবে কিন্তু স্বাধীনতা বিরোধী কেউ থাকবে না। স্বাধীনতা বিরোধীতারা এদেশে রাজনীতি করার সুযোগ পাবে না।

অনুষ্ঠানে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন- নাটোর-২ (নাটোর সদর-নলডাঙ্গা) আসনের সংসদ সদস্য মো.শফিকুল ইসলাম শিমুল, নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল কুদ্দুস, মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক, নাটোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাজেদুর রহমান খান। এসময় আরও বক্তব্যে রাখেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর ড. নিজামউদ্দিন আহমেদ, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর আবদুস সালাম হাওলাদার।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা