" /> আর্জেন্টিনার ফাইনালের পথে বাধা ক্রোয়েশিয়া – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৮:৫০ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ
খালেদা, তারেককে নিয়ে সময় টিভির প্রতিবেদন সম্পর্কে যা বললেন ফখরুল বিদ্যুতের দাম প্রতি মাসেই সমন্বয় করা হবে : প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী বিশ্বব্যাপী উচ্চশিক্ষার সুযোগ তৈরি করে দিয়েছেন : নাছিম বিআইডব্লিউটিএ’র অনুমোদন ছাড়া কোনো সেতু নয় : নৌ প্রতিমন্ত্রী সিলেটে আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবস- ২০২৩ উদযাপন সাংবাদিক আফতাব হত্যা : ৯ বছর ছদ্মবেশে ফাঁসির আসামি, অবশেষে গ্রেপ্তার বিদ্যার দেবী শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা সাংবাদিক আফতাব হত্যা : ৯ বছর ছদ্মবেশে ফাঁসির আসামি, অবশেষে গ্রেপ্তার বার বার আদালতে আনা নেয়ায় অসুস্থ হয়েছেন রিজভী : ইউট্যাব ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার মূল হাতিয়ার হবে ডিজিটাল সংযোগ : প্রধানমন্ত্রী

আর্জেন্টিনার ফাইনালের পথে বাধা ক্রোয়েশিয়া

712912 195

3 / 100

লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে আজ কাতার বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। হাই ভোল্টেজ এই ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

আজ জিতলে ষষ্ঠবারের মতো বিশ্বকাপ ফাইনালে উঠবে আর্জেন্টিনা। এখনো পর্যন্ত আলবিসেলেস্তাদের চেয়ে বেশিবার ফাইনাল খেলেছে মাত্র তিনটি দল- জার্মানি (আটবার), ব্রাজিল (সাতবার) ও ইতালি (ছয়বার)। এর আগে ১৯৩০, ১৯৭৮, ১৯৮৬, ১৯৯০ ও ২০১৪ সালে বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেছে আর্জেন্টিনা। ১৯৭৮ ও ১৯৮৬ সালে শিরোপা জয় করলেও বাকি তিনবার স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে তাদের।

১৯৩০ সালে বিশ্বকাপের প্রথম আসরে উরুগুয়ের বিপক্ষে ফাইনাল খেলেছিল আর্জেন্টিনা। উরুগুয়ের মাটিতে অনুষ্ঠিত সেই ফাইনালে হেরে যায় দলটি। এরপর ১৯৭৮ ও ১৯৮৬ সালে বিশ্বকাপ জেতে তারা। এর পর ১৯৯০ ও ২০১৪ দুইবারই জার্মানির কাছে হেরে শিরোপাস্বপ্ন ভেঙে যায় আলবিসেলেস্তেদের। ১৯৮৬ সাল থেকে আজ পর্যন্ত বিশ্বকাপ শিরোপা অধরা রয়ে গেছে দলটির কাছে।

ক্রোয়েশিয়ার কিছু অদ্ভুত রেকর্ড আছে বিশ্বকাপে। এখনো পর্যন্ত দেশটি মাত্র ছয়বার বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে। প্রথমবার তারা অংশ নেয় ১৯৯৮ সালে।

১৯৯৮ সাল থেকে ২০২২ পর্যন্ত (কেবল ২০১০ সাল ছাড়া) প্রত্যেকটি আসরে খেলেছে দলটি।

২০১৮ সালের বিশ্বকাপ আসরে কোনো নকআউট ম্যাচ নির্ধারিত ৯০ মিনিটে জিততে পারেনি ক্রোয়েশিয়া। রাউন্ড অফ সিক্সটিনে ডেনমার্ক ও কোয়ার্টার ফাইনালে রাশিয়াকে তারা হারিয়েছে পেনাল্টি শুটআউটে। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি পেনাল্টি শ্যুট আউট পর্যন্ত না গড়ালেও, তারা ইংল্যান্ডকে হারায় অতিরিক্ত সময়ের খেলায়।

একই চিত্র দেখা যাচ্ছে ২০২২ বিশ্বকাপেও। রাউন্ড অফ সিক্সটিনে জাপান ও কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়েছে তারা টাইব্রেকারে। ফলে প্রবল সম্ভাবনা আছে এই ম্যাচটিও গড়াতে পারে অতিরিক্ত সময়ের খেলায় কিংবা টাইব্রেকারে।

বিশ্বকাপে চারটি ভিন্ন দেশের বিপক্ষে চারবার পেনাল্টি শ্যুট আউটে মুখোমুখি হয়েছে ক্রোয়াটরা। এখনো পর্যন্ত প্রত্যেকটি শ্যুট আউটেই জিতেছে দেশটি। আজ জেতার জন্য সামর্থ্যের সবটুকু দিয়ে খেলবে তারা। তাদের সামনে রয়েছে দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনাল খেলার হাতছানি। ২০১৮ বিশ্বকাপে ফ্রান্সের কাছে হেরে রানার্স আপ হয় দলটি। ফলে এবারে সেই আক্ষেপ মেটানোর আপ্রাণ চেষ্টা করবে লুকা মদ্রিচ ও তার দল।

তবে পরিসংখ্যানে কিছুটা সুবিধা পাবে আর্জেন্টিনাও। এ পর্যন্ত কোনো সেমিফাইনাল হারেনি লা আলবিসেলেস্তরা। অর্থাৎ সেমিফাইনালে খেলা মানেই ফাইনালে যেন এক পা বাড়িয়ে রাখা। তাই এই আসরের সেমিফাইনাল ম্যাচে ফেভারিটের তকমা নিয়েই মাঠে নামবে তারা।

বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত মাত্র দুটি ম্যাচ খেলেছে আর্জেন্টিনা-ক্রোয়েশিয়া। দুই দলই একটি করে ম্যাচ জিতেছে। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ক্রোয়েশিয়াকে ১-০ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা। ২০১৮ বিশ্বকাপে আবারো দুই দল একই গ্রুপে পড়লে আগেরবারের হারের শোধ তোলে ক্রোয়াটরা। সেবারে আর্জেন্টিনাকে ৩-০ গোলে হারায় ক্রোয়েশিয়া।

আন্তর্জাতিক ম্যাচেও খুব বেশিবার দেখা হয়নি আর্জেন্টিনা-ক্রোয়েশিয়ার। এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক প্রীতিম্যাচে পাঁচবার দেখা হয়েছে দুই দলের। এর মধ্যে দুই দলই জিতেছে দুটি করে ম্যাচ, একটি ম্যাচ ড্র হয়েছে। ২০১৮ বিশ্বকাপের সেই ম্যাচের আর মুখোমুখি হয়নি দুই দল। সেমিফাইনাল ম্যাচটি হতে যাচ্ছে তাদের সপ্তম লড়াই।

এবারের বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত অপরাজিত আছে ক্রোয়েশিয়া। বিপরীতে সৌদি আরবের কাছে প্রথম ম্যাচ হেরে বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করেছে আর্জেন্টিনা।

এদিকে দুজন গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলারকে পাচ্ছে না আর্জেন্টিনা। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে হলুদ কার্ড দেখায় সেমিফাইনাল খেলতে পারবেন না মার্কাস অ্যাকুনা এবং গঞ্জালো মন্টিল। এর আগে অ্যাকুনা মেক্সিকো বিপক্ষে ও মন্টিল পোল্যান্ডের বিপক্ষে হলুদ কার্ড দেখেছিলেন। ফলে বেঞ্চে দর্শক হয়েই থাকতে হবে তাদের।

ক্রোয়েশিয়ার তেমন কোনো ইনজুরি বা সাসপেনশন না থাকায় পূর্ণশক্তির দল নিয়েই তারা নামবে। দলের গোলকিপার লিভাকোভিচ ক্রোয়াটদের সবচেয়ে ভরসার জায়গা। নকআউট পর্বে টানা দুই ম্যাচ টাইব্রেকারে জিতেছে ক্রোয়েশিয়া তারই শক্ত নার্ভের বদৌলতে। লিভকোভিচ ছাড়া লুকা মদ্রিচের ওপরও আজ দৃষ্টি রাখবেন সবাই। কারণ এই ম্যাচটি ক্রোয়েশিয়া-আর্জেন্টিনা ম্যাচ ছাপিয়েও হয়ে উঠতে পারে মদ্রিচ ও মেসির ব্যক্তিগত দ্বৈরথও। উপভোগ্য একটি ম্যাচের অপেক্ষায় রয়েছে গোটা বিশ্ব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা