" /> মুগদায় তৈরি দেশি-বিদেশি ব্রান্ডের নকল প্রসাধনী যাচ্ছে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে: ডিবি – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন

মুগদায় তৈরি দেশি-বিদেশি ব্রান্ডের নকল প্রসাধনী যাচ্ছে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে: ডিবি

1b616a93 9bae 475b 87e1 a2498630f6bd min

6 / 100

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজধানীর মুগদায় তৈরি হওয়া দেশি-বিদেশি ব্রান্ডের নকল মেহেদী, অলিভ অয়েলসহ নানা প্রসাধনী যাচ্ছে ঢাকা শহরসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিএমপি ডিবি) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ। তিনি বলেন, একটি চক্র অধিক লাভের আশায় দেশি-বিদেশি বিভিন্ন নামকরা ব্র্যান্ডের মোড়কে নকল ও ভেজাল প্রসাধনী দ্রব্য উৎপাদন ও বাজারজাত করে আসছে।


মঙ্গলবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

1b616a93 9bae 475b 87e1 a2498630f6bd min


এরআগে ডিএমপির গোয়েন্দা ওয়ারী বিভাগ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ব্রান্ডের নকল প্রসাধনী ও সরঞ্জামাসহ পাঁচজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলেন- মো. মহিউদ্দিন ওরফে সাগর, মো. নাজিম হোসেন, এমকে পারভজে, মো. আনোয়ার হোসেন ও মো. উজ্জল হোসেন মুকুল। সোমবার রাজধানীর মুগদা থানার দক্ষিণ মান্ডা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে ডিবি ওয়ারী বিভাগের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ টিম। এ সময়ে তাদের কাছ থেকে নকল অলিভ অয়েল ৪০০ বোতল, উৎসব একটিভ গোল্ড মেহেদি ৩০ বক্স, কাবেরী একটিভ গোল্ড মেহেদি ২০ বক্স, নেহা ফাস্ট মেহেদি ৩০ বক্স, ক্রিম ব্রস্ট ১২০ পিস, লুজ অলিভ ওয়েল ২০ লিটার, অলিভ অয়েলের এর খালি বোতল ১৩০টি, লোহার তৈরি ২টি ক্যাপ সিলিং মেশিন, লোহা ও স্টীল দ্বারা তৈরি ১টি ক্রিম ফিলিং ম্যানুয়াল মেশিন, হিট বা গান মেশিন ২টি, ক্যাস্টর অয়েল ৪০০ বোতল, গ্লিসািরন ১৫০ পিস, হহেয়ার রিমুভার ক্রিম ১২০ পিস ও ডক্টর সেফ ওয়াস ৮০ পিস জব্দ করা হয়।


সংবাদ সম্মেলনে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ব্রান্ডের নকল প্রসাধনী সম্পর্কে গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ঢাকা মহানগর এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে আমাদের কাছে তথ্য আসে যে মুগদার মান্ডা এলাকার একটি বাসায় দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ব্রান্ডের ভেজাল প্রসাধনী তৈরি হচ্ছে। আর তা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে যাচ্ছে। এই তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় ওই বাসায় অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করা হয়।
ডিএমপির এই গোয়েন্দা প্রধান বলেন, একটি চক্র বেশি লাভের আশায়। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন নামকরা ব্র্যান্ডের মোড়কে নকল ও ভেজাল প্রসাধনী দ্রব্য উৎপাদন ও বাজারজাত করে আসছিল।

এতে করে ভাল কোম্পানির সুনাম নষ্ট হচ্ছে ও আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। ভেজাল প্রসাধনী দ্রব্য ব্যবহার করার কারণে সাধারণ ভোক্তাদের ক্যান্সার, চর্ম রোগসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এই সংঘবদ্ধ নকল প্রসাধনী দ্রব্য উৎপাদন চক্রটি অনিবন্ধিত ট্রেডমার্ক, নকল বাণিজ্যিক প্রতীক এমনকি মোড়কের লেভেলে নকল বিএসটিআই প্রতীকও ব্যবহার করছে।


তাদের বিরুদ্ধে ডিএমপির মুগদা থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা