" /> বগুড়ায় অবৈধভাবে বিএডিসি’র সেচযন্ত্রের অনুমোদনের চেষ্টার অভিযোগে – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:০১ অপরাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ
নারী জাগরণের মধ্যেই সকলের সম্মিলিত অংশগ্রহণে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হবে : প্রধানমন্ত্রী বিদেশি কূটনীতিকদের বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে অযাচিত মন্তব্য না করার আহ্বান : সেতুমন্ত্রী গুজরাট বিজেপি ১৮২ আসনের ১৫৬টিতে জয়ী হয়ে রেকর্ড রিমান্ড শেষে কারাগারে টুকুসহ সাত জন জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে ফখরুল-আব্বাস ফখরুল-আব্বাসকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ সর্দিতে নাক বন্ধ হলে আরাম পেতে যা করবেন আর্জেন্টিনা-নেদারল্যান্ডসের আগের লড়াইগুলো ম্যাচ পরিসংখ্যান ব্রাজিল ও ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচ পরিসংখ্যান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের রেসিডেন্সি কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত ডিবি কার্যালয়ে বাসা থেকে পাঠানো নাস্তা খেয়েছেন ফখরুল

বগুড়ায় অবৈধভাবে বিএডিসি’র সেচযন্ত্রের অনুমোদনের চেষ্টার অভিযোগে

PRESS CONFA PIC 2 22 NOV 22

বগুড়া প্রতিনিধি. বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) বগুড়ার ধুনট উপজেলা সেচ কমিটি ও কতিপয় কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে অবৈধভাবে বিদ্যুৎচালিত সেচযন্ত্রের অনুমোদনের চেষ্টা করছে প্রতিপক্ষরা। নিয়ম বর্হিভূতভাবে অবৈধ সেচযন্ত্রের অনুমোদন বন্ধের দাবী জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন এক প্রান্তিক কৃষক।
মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে বগুড়ার শেরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত অভিযোগ পাঠ করেন কৃষক সুলতান খান।


লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ধুনট উপজেলার ছাতিয়ানী গ্রামের আমি একজন প্রান্তিক কৃষক। ২০২০ সাল থেকে বিএডিসি’র উপজেলা সেচ কমিটি কর্তৃক ৬৪/২০ এবং ৬৫/২০নং লাইসেন্সপ্রাপ্ত হয়ে বিদ্যুতচালিত সেচযন্ত্র পরিচালনা করে আসছি। সেচ প্রকল্পটি বর্তমানে ছাতিয়ানী মৌজার, জেএলনং-৮৮, দাগ- ৫৯১/১৬৯, খতিয়ান ১৩৭০ এ অবস্থান করে প্রায় ৬০/৬৫ বিঘা জমিতে সেচকার্য করে আসছে। কিন্তু সম্প্রতি ছাতিয়ানী গ্রামের মোজাহার আলীর ছেলে মোঃ মাহমুদ আলম মুন্সী, আমার সেচ কমান্ডিং এরিয়ার মধ্যে নতুন সেচযন্ত্র বসানোর পায়তারা করছে।

PRESS CONFA PIC 2 22 NOV 22


বিএডিসি’র সেচ ব্যাবস্থাপনা আইন অনুযায়ী সরকার অনুমোদিত সেচযন্ত্র থেকে প্রায় ৮২০ মিটারের মধ্যে নতুন কোন সেচযন্ত্র বসানোর সুযোগ নেই। কিন্তু মাহমুদ আলম মুন্সী একটি কুচক্রী মহলের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ভূল বুঝিয়ে ও ম্যানেজ করে আমার সেচযন্ত্র থেকে ২০০ ফুট দুরত্বে নতুন সেচযন্ত্র অনুমোদনের জন্য আবেদন করছেন বলে অবগত হয়েছি।


ইতিমধ্যেই ওই স্থানে সেচযন্ত্র বসানোর জন্য একটি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে এবং পানি গড়ানোর জন্য ড্রেন তৈরী করা হয়েছে। সেখানে অবৈধভাবে নতুন করে সেচযন্ত্র স্থাপন করলে আমার সেচ এলাকায় চাষাবাদ চরম ঝুকিতে পড়বে। এমতাবস্থায় সরেজমিন তদন্ত করে আমার সেচযন্ত্র এলাকার মধ্যে নতুন করে সেচযন্ত্রের অনুমোদন না প্রদানে আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ বিষয়ে উপজেলা বিএডিসি(সেচ) এর উপ-সহকারি প্রকৌশলী খন্দকার মোস্তাফিজার রহমান বলেন, ২শ ফুট দুরত্বে সেচযন্ত্র অনুমোদন দেওয়ার কোন প্রশ্নই উঠে না। বিধিবর্হিভূত কেউ যদি সংযোগ স্থাপনের চেষ্টা করে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


ফেসবুকে আমরা