" /> জামায়াতের নাটক বিএনপিকে ছেড়ে যাওয়া: ওবায়দুল কাদের – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন

জামায়াতের নাটক বিএনপিকে ছেড়ে যাওয়া: ওবায়দুল কাদের

KA

5 / 100

আজ বুধবার ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ কৃষক লীগ।জামায়াত ও বিএনপি মাঝে মাঝে অভিমান করে (একে অপরকে) ছেড়ে যাওয়ার নাটক করলেও ভিতরে ভিতরে তাদের গলায় গলায় খাতির বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক, পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর বহু স্বপ্ন ছিল। সেই স্বপ্নের একটা তিনি নিজেই বাস্তবে রূপ দিয়ে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। আমার বিশ্বাস, আল্লাহ স্বাধীনতার জন্য একজনকে এবং অর্থনীতির মুক্তির জন্য পৃথিবীতে আরেকজনকে পাঠিয়েছেন (বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনা)। বাংলাদেশে যা কল্যাণকর বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার হাত ধরেই হয়েছে। শেখ হাসিনার হাত ধরে এত স্বল্প সময়ে এত উন্নয়ন হয়েছে যা পৃথিবীতে বিরল।’

KA

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করতে দেয়নি জিয়াউর রহমান। ১৫ আগস্ট এলেই জন্মদিন পালন করে উল্লাস করে বিএনপি। খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া মাহফিল করলে আমাদের ও দেশবাসীর আপত্তি নেই। কিন্তু ভুয়া জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল করলে দেশের জনগণের আপত্তি আছে। সত্যের মুখোমুখি হতে কেন এতো ভয় পান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর?’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করতে যেমন দেননি জিয়াউর রহমান। তারও হত্যার বিচার হয়নি। জিয়াউর রহমানের কফিনে লাশ ছিল বলে একটা প্রমাণ কি দেখাতে পারবেন? চট্টগ্রাম থেকে লাশ এনে জানাজা পড়েছেন। তখন কফিনে তার লাশ আছে এর একটা ছবি কি দেখাতে পারবেন? একটা প্রমাণ দেখাতে পারবেন?’

আওয়ামী লীগের বিচার করা হবে বলে বিএনপি নেতারা যে বক্তব্য দিয়েছেন তার জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কার বিচার করবেন? আপনাদের অনেক বিচার বাকি আছে। বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার জিয়াউর রহমান বন্ধ করেছিলেন। তিনি মানুষের আদালত থেকে বেঁচে গেলেও ইতিহাসের আদালত থেকে রেহাই পাননি। শুধু মানুষের আদালতই না, ইতিহাসের আদালতও আছে। আরও অনেক বিচার বাকি আছে মির্জা ফখরুল সাহেব!’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নিজের দলের গুমের হত্যার বিচার কে করবে ফখরুল ইসলাম আলমগীর? নিজেরাই দলের নেতাকে গুম করে হত্যা করেছে- সেই বিচার বাকি আছে। সেটাও ফাঁস হয়ে গেছে। অহেতুক মিথ্যা গুম, খুনের কথা আর কত? সত্যি যারা গুম হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা আছে তাদের জন্য তদন্ত করার।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ভয় দিয়ে কথা বলেন আওয়ামী লীগকে। আওয়ামী লীগ ভয় পাওয়ার দল নয়। আপনারা ভয় পান কেন? ভয়কে যারা জয় করতে জানে না তারা কাপুরুষ। তাদের রাজনীতি করা অধিকার নেই। ভয়কে জয় করতে শিখুন।’

বিএনপির কিছু নেতাকর্মী মাঠে নামছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বিএনপির যতগুলো মিটিং আমরা দেখছি সবগুলোতে মারামারি। মারামারি নিজেরা করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে। আর অপবাদ দিচ্ছে আওয়ামী লীগ বাধা দেয়। অপেক্ষা করুন, নির্বাচন আসুক। নির্বাচনে অংশ নেন, দেখবেন কার কতটুকু জনপ্রিয়তা।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিশ্বের এই পরিস্থিতিতে কোনো কিছুর দাম কমানোর নজির নেই। কিন্তু শেখ হাসিনা তেলের দাম কমিয়েছেন। তারপর বিএনপি মিথ্যাচার করছে- এটাই হলো বিএনপির চরিত্র।’

দলের নেতাকর্মীদের সর্তক থাকার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সর্তক থাকতে হবে, মাথা ঠান্ডা করে এগিয়ে যেতে হবে। আমরা কাউকে আক্রমণ করব না। আমাদের কেউ আক্রমণ করলে পাল্টা জবাব দেওয়া দিতে হবে।’

কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শরীফ আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলীসহ কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতৃবৃন্দ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা