" /> নারীদের বঙ্গমাতার জীবনাদর্শ অনুসরণ করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী - নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৩:০৬ পূর্বাহ্ন
নিউজ বোর্ড :
শেখ হাসিনা: নির্বাচন,নিয়ে যা বললেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির শুভেচ্ছা বিনিময় হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে আগামী বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন বিদায় বেলায় দেবীর রাঙা উৎসব দুর্গা দেবী নৌকায় চেপে স্বর্গলোকে ফিরলেন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের কথা বিএনপির মুখে শোভা পায় না: কাদের বিএনপি প্রস্তুতি নিচ্ছে এক দফা আন্দোলনের আবারও করোনায় আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ভোক্তারা নজরদারি চান ,সয়াবিন তেল মিলছে না নতুন দরে যুক্তরাষ্ট্রের ঘোষণা,ইউক্রেনকে ৬২৫ মিলিয়ন ডলারের সামরিক সহায়তার পাইলট নিহত ভেঙে পড়ল ভারতীয় সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার শাহবাজ ইমরানকে বললেন ‘বিশ্ব মিথ্যুক’ ইউক্রেন যৌথভাবে ২০৩০ বিশ্বকাপের বিড ধরছে মেসি আগামী মৌসুমে বার্সায় ফিরবেন যুক্তরাজ্য-যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন বৃহস্পতিবার শেখ হাসিনা আছেন বলেই দেশে গণতন্ত্রের সুবাতাস বইছে : কাদের সুলতানা কামালরা আওয়ামী অধিকার রক্ষার কর্মী : রিজভী ‘মেয়াদ শেষ হলেই পদ ছেড়ে দেব’ ঘোষণা পাক সেনাপ্রধানের ইউরোপের প্রতি সংহতি না দেখানোয় জার্মানির সমালোচনা রসায়নে নোবেল পেলেন তিন বিজ্ঞানী
নোটিশ বোর্ড :
আসন্ন দূর্গা পূজা উপলক্ষে হিন্দু সন্প্রদায় এর সকল সদস্য কে শারদীয় শুভেচ্ছা।।নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন সকল ধর্মের প্রতি শ্রদ্বাশীল জরুরি ঘোষণাঃ আমাদের আই টি বিভাগের কারিগরি উন্নয়ন এর কাজ চলছে! এতে প্রচারে বিঘ্ন ঘটতে পারে সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখিত। #Ndtvbdnewsroom “জরুরী আবশ্যক”বেসরকারী অনলাইন টেলিভিশন চ্যানেল ” নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন ” এনডিটিভি তে এ উপস্থাপক উপস্থাপিকা, ভয়েস আটির্স,অফিস সহকারী পুরুষ – মহিলা এসএসসি,এইচএসসি,স্নাতক,ছবি সহ আবেদন করতে হবে এই মেইলে hr@ndtvbd.com * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * নাগরিক সাংবাদিকতার পথে ,আপনি হতে পারেন নাগরিক সাংবাদিক, দেরি না করে এখনি পাঠিয়ে দিন আপনার ছবি সহ বায়োডাটা এই মেইলে hr@ndtvbd.com, আপনারা যদি কোন সংবাদ বা নিউজ ক্লিপ পাঠাতে চান তাহলে এই মেইলে পাঠাতে পারেন news@ndtvbd.com– Head Of News–* পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার

নারীদের বঙ্গমাতার জীবনাদর্শ অনুসরণ করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

d19dc

5 / 100

সোমবার (৮ আগস্ট) বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব’ পদক প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জীবনাদর্শ অনুসরণ করে নারীদের অতিরিক্ত চাওয়া-পাওয়া ও বিলাসিতা ছেড়ে মানুষের কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

d19dc

শেখ হাসিনা বলেন, রাষ্ট্র চালিয়েছেন আমার বাবা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। কিন্তু অনেক বিষয়ে আমার মা তার পাশে থেকে সাহস যুগিয়েছেন, সহযোগিতা করেছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, মায়ের সহযোগিতায় আমার আব্বা মনে প্রাণে দেশের কাজটা করতে পেরেছিলেন। রাজনৈতিক ক্ষেত্রেও যে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগুলো…সেক্ষেত্রে আমার মা যে সিদ্ধান্তগুলো দিয়েছেন, সেটাই আমাদের স্বাধীনতা অর্জনে সব চেয়ে সহায়ক হয়েছে। ‘ছয় দফা’ বাদ দিয়ে যদি ‘আট দফায়’ চলে যেত আওয়ামী লীগ, তাহলে এই দেশে কখনও মানুষের মুক্তি আসতো না।

তিনি বলেন, বাবার প্যারোলে মুক্তির জন্য যে চাপটা ছিল…দুর্ভাগ্য আমাদের আওয়ামী লীগের বড় বড় নেতারাই কিন্তু চাপটা দিয়েছিলেন। তখন যদি আব্বা প্যারোলে চলে যান… তাহলে এই আন্দোলনও থাকতো না, সংগ্রামও থাকত না, আগরতলা মামলাও প্রত্যাহার হতো না। সার্জেন্ট জহুরুল হককে হত্যা করা হয়েছিল। আর বাকি আসামিদের তারা মৃত্যুদণ্ডই দিত। কেউ আর বেঁচে থাকত না, বাংলাদেশ স্বাধীনতার মুখ দেখতে পারত না।

শেখ হাসিনা বলেন, সবসময় আমার মা ছিলেন আমার বাবার ছায়া সঙ্গী। বাবার আদর্শটাকে তিনি ধারণ করেছিলেন। প্রতিটি কাজে তিনি সহযোগিতা করতেন। আমার আব্বার খুব সৌভাগ্য ছিল, আমার মায়ের মতো একজন জীবনসঙ্গী পেয়েছিলেন। সেই সঙ্গে আমার দাদা-দাদীর কথাও বলব। বাবা-মা বড় ছেলে কলকাতায় হোস্টেলে রেখে পড়াচ্ছেন, আকাঙ্ক্ষা থাকতে পারত বড় ছেলে টাকা কামাই করে তাদের দেবেন। কিন্তু উল্টো তারা টাকা দিতো এবং আমার মাও নিজের খরচের টাকা দিয়ে দিতেন। আব্বা এরকম জীবন সাথী ও বাবা-মা পেয়েছিলেন বলেই আমাদের দেশের সংগ্রামে সাফল্য অর্জন করা এবং স্বাধীনতা অর্জন সহজ হয়েছিল।

তিনি বলেন, মা যদি ত্যাগ শিকার না করতেন… সারাক্ষণ এটা চাই, ওইটা চাই, মন্ত্রী থেকে কেন পদত্যাগ করলে? মন্ত্রীর বাড়ি ছেড়ে কেন যেতে হবে? এত আয়েশে থেকে কেন যাবে নাজিরা বাজারের অন্ধকার গলিতে। আমার মা কিন্তু কখনোই এগুলো বলেননি। যখন যে অবস্থায় থাকা সেই অবস্থায় মানিয়ে চলার এক অদ্ভুত শক্তি ছিল তার। আমাদেরও সেটা তিনি শিখিয়েছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৬৩ সালে হোসেন শহীদ সোহারাওয়ার্দীর পরামর্শে ধানমন্ডির ৩২ নম্বর সড়কের বাড়ি বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের নামে বঙ্গবন্ধু লিখে দেন বলে জানান তাদের কন্যা শেখ হাসিনা। সেই সময় তাদের বিয়ের কাবিন নামা থেকে বঙ্গমাতার জন্ম তারিখ জানা যায় বলে জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, সেই থেকে মায়ের জন্মদিন আমরা ঘরোয়াভাবেই পালন করতাম।

দেশের নারী সমাজকে বঙ্গমাতার আদর্শ ধারণ করার অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, শুধু চাওয়া-পাওয়া, বিলাসিতা জীবন নয়। মানুষের কল্যাণে কাজ করার অনেক সুযোগ আছে। আদর্শ মেনে চললে মানুষের জন্য অনেক অবদান রাখা যেতে পারে। আমার মা তার মহান আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে, আমার বাবা যে মহৎ অর্জন করেছিলেন, স্বাধীন বাংলাদেশে সেটাই তিনি দিয়ে গেছেন।

অনুষ্ঠানে ঢাকায় বঙ্গমাতা কর্মজীবী মহিলা হোস্টেলের নবনির্মিত ১০ তলা ভবন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়কে দেশের প্রতিটি জেলায় কর্মজীবী মহিলা হোস্টেল করার নির্দেশনাও দেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি জেলায় এই ধরনের মহিলা হোস্টেল করে দেওয়া উচিত। আমাদের অনেক কর্মজীবী মহিলা আছেন, তারা যেন সঠিকভাবে থাকতে পারেন সেই ব্যবস্থাটা নেওয়া উচিত। জেলা-উপজেলায় এটা করে দিতে পারলে কর্মজীবী মহিলাদের থাকার ব্যবস্থা হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন কথা সাহিত্যিক আনোয়ারা সৈয়দ হক। আরও বক্তব্য রাখেন- জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান চেমন আরা তৈয়ব ও সচিব মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


ফেসবুকে আমরা