রবিবার, ০৭ অগাস্ট ২০২২, ১১:০৪ অপরাহ্ন
নিউজ বোর্ড :
ট্রাকের সিলিন্ডারের মধ্যে,অভিনব কায়দায় ইয়াবা পাচার রিয়েল এস্টেট ব্যবসার আড়ালে প্রতারণা অতিরিক্ত ভাড়া দাবি করবেন না,বাস মালিক-শ্রমিকরা সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তথ্য বিকৃতি করছেন তথ্যমন্ত্রী: নজরুল ইসলাম খান জ্বালানি তেলের দাম মূল্যবৃদ্ধির পরও অনেক দেশের তুলনায় কম: তথ্যমন্ত্রী এটাই হবে শপথ,শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করতে হবে-মায়া চৌধুরী ১১ নবনিযুক্ত বিচারপতির বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক সামিয়া রহমানকে পদাবনতির প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত বাতিল করেছেন হাইকোর্ট জাতীয় পার্টির ২ দিনের কর্মসূচি, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে পল্টনে ফখরুলের দাবি, ভোলার ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত শেয়ারবাজারে প্রভাব জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ইসরায়েলি হামলায় গাজায় নিহত বেড়ে ২৮ গুলি করে চারজনকে যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইওতে হত্যা পিএসজির মেসি-নেইমারে গোল উৎসব মুশফিকও ধরা তামিমের মতো বড় বাউন্ডারিতে মারতে গিয়ে শেখ কামাল বেঁচে থাকবেন চির তারুণ্যের প্রতীক হয়ে বেঁচে থাকবেন রাজ-পরী যা করছেন অনাগত সন্তানের জন্য রব–মান্না–সাকি–নুরুলরা আসছেন ‘গণতন্ত্র মঞ্চ’ নিয়ে বৈঠক চলছে গণপরিবহনের ভাড়া পুনঃনির্ধারণে মালয়েশিয়া,বিদেশি শ্রমিক নেওয়ার আবেদন বন্ধ করল
নোটিশ বোর্ড :
জরুরি ঘোষণাঃ আমাদের আই টি বিভাগের কারিগরি উন্নয়ন এর কাজ চলছে! এতে প্রচারে বিঘ্ন ঘটতে পারে সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখিত। #Ndtvbdnewsroom “জরুরী আবশ্যক”বেসরকারী অনলাইন টেলিভিশন চ্যানেল ” নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন ” এনডিটিভি তে এ উপস্থাপক উপস্থাপিকা, ভয়েস আটির্স,অফিস সহকারী পুরুষ – মহিলা এসএসসি,এইচএসসি,স্নাতক,ছবি সহ আবেদন করতে হবে এই মেইলে hr@ndtvbd.com * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * নাগরিক সাংবাদিকতার পথে ,আপনি হতে পারেন নাগরিক সাংবাদিক, দেরি না করে এখনি পাঠিয়ে দিন আপনার ছবি সহ বায়োডাটা এই মেইলে hr@ndtvbd.com, আপনারা যদি কোন সংবাদ বা নিউজ ক্লিপ পাঠাতে চান তাহলে এই মেইলে পাঠাতে পারেন news@ndtvbd.com– Head Of News–* পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার * পরিক্ষামুলক সস্প্রচার

এ মাসের শেষে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে পারব বলে আশা করছি: প্রধানমন্ত্রী

index 5

করোনা সংক্রমণ কমার প্রত্যাশা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আশা করি এ মাসের শেষের দিকে করোনা সংক্রমণ কমে যাবে। সে সময়ই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেবো।’

তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যাতে আমরা খুলতে পারি তার জন্য টিকা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এইচএসসির ফলাফল গ্রহণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। এসময় রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে মূল অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যখনই করোনা নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছি, তখনই আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু করেছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্য যে নতুন করে সংক্রমণ দেখা দিলো। সেপ্টেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হলো, চলতি ভছর জানুয়ারি মাস থেকে আবারও ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলো, সেজন্য আবার আমাদের এটা বন্ধ করে দিতে হলো। তবে আমি আশা করি আমরা খুলে দিতে পারবো।

এসময় সকলকে টিকা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ১২ বছরের ঊর্ধ্বে সব ছেলেমেয়েকে টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। টিকা নেওয়ার প্রতি অনেকেরই একটা অনীহা থাকে। তবে এখন আমরা সব স্তরের মানুষ; যারা টিকা পায়নি এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যাতে খুলতে পারি—  সেজন্য টিকা কার্যক্রম অব্যাহত আছে। তাই এখন পর্যন্ত যারা টিকা নেননি তাদের প্রতি অনুরোধ থাকবে টিকা নিয়ে নিন। তাতে করোনা সংক্রমিত হলেও খারাপ পর্যায়ে যাবে না।

এসময় চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের মাধ্যমে দেশ এবং বিদেশে বিপুল কর্মসংস্থানের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সময়ের উপযুক্ত শিক্ষা গ্রহণ করার তাগিদ দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বিশ্ব এগিয়ে যাচ্ছে, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব আমাদের দোরগোড়ায়। আমাদের ছেলেমেয়েরা অত্যন্ত মেধাবী। তাদের যদি আমরা উপযুক্ত শিক্ষা দিতে পারি, তাহলে চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের পরিপ্রেক্ষিতে দেশ এবং বিশ্বব্যাপী যে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে; তা তারা নিতে পারবে। তাদের সেভাবেই প্রশিক্ষণ দিতে হবে। গতানুগতিক ডিগ্রি নিলেই হবে না। কর্মসংস্থানের উপযুক্ত শিক্ষাই গ্রহণ করতে হবে, সেই শিক্ষাই আমাদের দিতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘করোনাকালে আমরা অনলাইনে সীমিত আকারে শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখতে সক্ষম হই। কারণ ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার ঘোষণা আমাদের নির্বাচনি ইশতেহারে ছিল। আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলেছি বলেই, অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছি। তারপরও আমি বলবো, করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত আমাদের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাবে, কলেজে যাবে, বিশ্ববিদ্যালয়ে যাবে; তাদের জন্য সুন্দর পরিবেশ থাকবে। বর্তমান সময়ে অনেককেই একাকিত্বে ভুগতে হয়েছে। সঠিকভাবে পড়াশোনার সুযোগ পায়নি। অনলাইনে শিক্ষার সুযোগ করেছি ঠিকই, কিন্তু স্কুলে কলেজে যে পরিবেশ সেই একাগ্রতা থেকে তারা বঞ্চিত ছিল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


ফেসবুকে আমরা