" /> প্রাথমিক সমাপনী নয় মূল্যায়ন স্কুলেই – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:০৮ পূর্বাহ্ন

প্রাথমিক সমাপনী নয় মূল্যায়ন স্কুলেই

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় তার কাছে সারসংক্ষেপসহ এ প্রস্তাব পাঠায়। পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের এ বছরের প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না। এর পরিবর্তে নিজ নিজ স্কুলে বার্ষিক পরীক্ষার মাধ্যমে মূল্যায়ন করে তাদের ষষ্ঠ শ্রেণিতে উন্নীত করা হবে। এ-সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার টেবিলে।

করোনা মহামারির কারণে ১৭ মাস টানা ছুটির পরে গত ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল-কলেজের সঙ্গে দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোও খুলে দেওয়া হয়। সেই থেকে গতকাল পর্যন্তত ২৩ কার্যদিবস পার হয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর। এর মধ্যে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে ৬ দিন এবং সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে মাত্র এক দিন ক্লাস করেছে। ২ অক্টোবর থেকে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীরা সপ্তাহে মাত্র দু’দিন করে ক্লাস করতে শুরু করেছে। তবে এই গুটি কয়েক ক্লাস করে সারা বছরের সিলেবাস পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না।
প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা সাধারণত প্রতিবছর নভেম্বরের মাঝামাঝি নেওয়া হয়ে থাকে। তবে করোনার কারণে গত বছর এ পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। অন্যদিকে সিলেবাস শেষ না হওয়ায় এ বছরের পরীক্ষাও বাতিল করতে চাইছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন এবং মন্ত্রণালয়ের সচিব গোলাম মোহাম্মদ হাসিবুল আলমের সই করা সারসংক্ষেপে বলা হয়েছে, শ্রেণিকক্ষে শিখন-শেখানো কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায় যে, শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি পূরণের জন্য প্রণীত পরিকল্পনা শিক্ষক ও শিক্ষা কর্মকর্তা কর্তৃক বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ২০২১ শিক্ষাবর্ষের মাত্র দুই-তিন মাস অবশিষ্ট আছে। এই স্বল্প সময়ের মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার প্রশ্নপত্র তৈরি ও মুদ্রণ; দেশব্যাপী একযোগে এই পরীক্ষা পরিচালনা করা এবং নির্ধারিত সময়ে ফল প্রকাশ করা কষ্টসাধ্য হবে।
প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সারসংক্ষেপে আরও বলা হয়, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে স্বল্প সময়ের মধ্যে ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা সম্পন্ন করা এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা সম্ভব হবে না।
সারসংক্ষেপে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা এ বছর না নিয়ে বিকল্প প্রস্তাব দিয়ে বলা হয়, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি এবং শ্রেণিকক্ষে শিখন-শেখানো কার্যক্রম বিবেচনাক্রমে ২০২১ শিক্ষাবর্ষের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা গ্রহণের পরিবর্তে নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করে তাদের পরবর্তী শ্রেণিতে উন্নীতকরণের কার্যক্রম গ্রহণ করা যেতে পারে।
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম প্রধানমন্ত্রীর কাছে সারসংক্ষেপ পাঠানোর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি সমকালকে বলেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন চেয়েছি। তিনি যা সিদ্ধান্ত দেবেন, আমরা বাস্তবায়ন করতে প্রস্তুত আছি।’ ndtvbd/news desk


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা