" /> আফগানিস্তানে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার চায় তুরস্ক – নাগরিক দৃষ্টি টেলিভিশন
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন

আফগানিস্তানে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার চায় তুরস্ক

Turkey image

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অবস্থান করা এরদোয়ান সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এ প্রসঙ্গে কথা বলেন বলে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরাপাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পর এবার আফগানিস্তানে তালেবান ঘোষিত সরকার নিয়ে কথা বললেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠনের জন্য তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এরদোয়ান বলেছেন, তালেবানের বর্তমান কর্মপন্থা ও অন্তর্বর্তীকালীন সরকার অন্তর্ভুক্তিমূলক নয়। তালেবান যদি সবাইকে নিয়ে সরকার গঠন করে, তাহলে তাদের সঙ্গে কাজ করবে তুরস্ক।

তিনি বলেন, তালেবানের কাজকর্মের দিকে নজর রাখছি আমরা। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলো, আফগানিস্তানে একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠিত হয়নি।তালেবান হয়তো অধিক অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করবে।

এরআগে বিবিসির সঙ্গে সাক্ষাৎকারে আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সব পক্ষকে নিয়ে সরকার গঠন করা সম্ভব না হলে শিগগিরই এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে বলে সতর্ক করেন তিনি।

মঙ্গলবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিতে ওই সাক্ষাৎকার প্রচার করা হয়। ইমরান খান বলেন, আফগানিস্তানে যদি সবাইকে নিয়ে সরকার গঠন করা সম্ভব না হয়, তবে পরিস্থিতি দিন দিন গৃহযুদ্ধের দিকে মোড় নিতে পারে। দ্রুত কিংবা দেরিতে হলেও এটি ঘটবে। এর প্রভাব পাকিস্তানের ওপরেও পড়বে।

পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, খান বলেন, আফগানিস্তানে প্রাথমিকভাবে একটি গৃহযুদ্ধ শুরু হলে মানবিক ও শরণার্থী সংকটের সম্ভাবনা নিয়ে পাকিস্তান উদ্বিগ্ন। পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত সশস্ত্র গোষ্ঠী দ্বারা আফগান মাটি ব্যবহারের সম্ভাবনা নিয়েও উদ্বেগ আছে।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানে ক্ষমতায় ছিল তালেবান। তখনও নারী অধিকার ও শিক্ষা নিয়ে কড়াকাড়ি আরোপ করে তারা। গত মাসের মাঝামাঝি আবারও দেশের ক্ষমতায় বসার পর আগের মতোই পরিস্থিতি তৈরি হয় কিনা তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে নারীবিষয়ক মন্ত্রণালয় বন্ধ করে দিয়েছে তালেবান।

একের পর এক শহর দখলে নিয়ে গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল নিয়ন্ত্রণে নেয় তালেবান। এরপর চলতি মাসের শুরুর দিকে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে তারা। বারবার সব পক্ষের অংশগ্রহণে সরকার গঠনের কথা বললেও তালেবানের ঘোষিত সরকারে তার প্রতিফলন নেই। তাদের সরকারে নেই কোনও নারী সদস্যও।

ndtvbd/news desk


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা